ইন্ডি জোট চটকে গেছে! আক্রমণ বিজেপি নেতার

বিজেপি নেতা তরুণজ্যোতি তেওয়ারি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে লেখেন, "সোনার পাথর বাটি যেমন হয় না ঠিক তেমনই কাঁঠালের আমসত্ত্ব হয় না। ইন্ডি জোট অনেকদিন আগেই চটকে গেছে সুতরাং তাদের সরকারে আসার কোনো চান্স নেই।"

author-image
Tamalika Chakraborty
New Update
aaaaa

নিজস্ব সংবাদদাতা: বিজেপি নেতা তরুণজ্যোতি তেওয়ারি নিজের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে লেখেন, "সোনার পাথর বাটি যেমন হয় না ঠিক তেমনই কাঁঠালের আমসত্ত্ব হয় না। ইন্ডি জোট অনেকদিন আগেই চটকে গেছে সুতরাং তাদের সরকারে আসার কোনো চান্স নেই। কিন্তু হঠাৎ করে এরকম কথা কেন? আমাদের মুখ্যমন্ত্রী এমনি এমনি তো কথা বলেন না।

এককভাবে তৃণমূল দেশে ক্ষমতায় আসতে পারবে না বা যে কোন জোটের সরকার তৈরি করার মত সংখ্যা তাদের কাছে থাকবে না।।তাহলে হঠাৎ আবার এই কথা কেন?  এর পেছনেই লুকিয়ে আছে শেষ রক্ষার সমীকরণ। পশ্চিমবঙ্গের  যে কটা আসনের ভোট হয়েছে সেখান থেকে এটা পরিষ্কার যে উত্তরবঙ্গ থেকে তৃণমূল সাফ হয়ে গেছে,  নদিয়া জেলায় তৃণমূলের অস্তিত্ব সংকটে এবং বর্ধমানের অবস্থা খারাপ। বহরমপুরের আসনটাতেও বিজেপি জেতার সম্ভাবনা প্রচুর।

যে কটা আসনে ভোট হয়েছে সেখানে তৃণমূলের শোচনীয় অবস্থা এবং সেটা মাটির নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভালোমতো বুঝতে পারছেন। দক্ষিণবঙ্গে বেশ কিছু আসন নির্ভর করা আছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুধ দেওয়া গরুদের ওপর (আমাকে ক্ষমা করবেন এই দুধ দেওয়া গরু কথাটা আমি বলিনি এরা মমতার দেওয়া নাম) । এই দুধ দেওয়া গরু সম্প্রদায়ের মানুষ মমতার উপর খুব একটা ভরসা রাখছে বলে মনে হয় না। ভরসা রাখবেই বা কেন বলুন তো?  এদেরকে ব্যবহার করেছে তৃণমূল এবং ব্যবহার করার পর পুরনো টিস্যু পেপার এর মত ডাস্টবিনে ফেলে দিয়েছে। বগটুই, গোসাবা, বাসন্তী, চোপরা সহ একাধিক জায়গায় তৃণমূলের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ আক্রান্ত হয়েছে তৃণমূলের হাতে। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের প্রাণ নিয়েছে তৃণমূল।

তারা তৃণমূলের থেকে মুখ ফিরিয়েছে। এই অবস্থায় এই জোটের একটা বার্তা দিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চাইছেন যাদের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ তার কাছে আবার ফিরে আসে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বক্তব্যটা অত্যন্ত হাস্যকর। গতকালকে বলেছেন যে এই ভোটটা তৃণমূলের ভোট নয়, এটা কেন্দ্রের ভোট। আবার বললেন যদি ইন্ডি পিন্ডি খিচুড়ি করে ক্ষমতায় আসতে পারে ( যদিও এটাকে স্বপ্নদোষ বলে)  তাহলে তিনি নাকি বাইরে থেকে সমর্থন করবেন।"

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রের নির্বাচন নিয়ে যদি এতটাই উদাসীন হয় তাহলে এই নির্বাচনে প্রার্থী দিয়েছেন কেন? 

চিন্তা নেই মানুষ সজাগ হয়েছে এবং মানুষ চোরদের বিসর্জন দেওয়ার জন্য তৈরি।"

fgjm

 

 tamacha4.jpeg