প্রতারণার অভিযোগে আড়াই বছর পর গ্রেফতার 'প্রভাবশালী' ব্যবসায়ী

লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়েছিল চেন মার্কেটিং এর নাম করে। 

author-image
Adrita
আপডেট করা হয়েছে
New Update
ড

নিজস্ব সংবাদদাতা, দুর্গাপুরঃ ২০২১ সালের ১৯ জুলাই দুর্গাপুরের বাসিন্দা স্বপ্না চাঁই নামে এক মহিলা বিদ্যুৎ পোদ্দার নামে কলকাতার এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ করে। বিদ্যুৎ পোদ্দার কলকাতা থেকে দুর্গাপুরে এসে "চা সঙ্গী" নামে এক প্রতিষ্ঠান খুলে বসে। যেখানে দুর্গাপুরের বেশ কয়েকজন মানুষের কর্মসংস্থান হয়। আবার উত্তরবঙ্গ থেকেও কয়েকজনকে নিয়ে এসে দুর্গাপুরের ৫৪ ফুট নামক এক জায়গায় অফিস খুলে তাদের রাখে। দুর্গাপুরের স্বপ্না চাঁইকে তাদের অফিসের ম্যানেজারের দায়িত্ব দেয়। উত্তরবঙ্গ থেকে দুর্গাপুরে নিয়ে আসা যুবক-যুবতীদের চাকরিতে নিয়োগ করিয়ে বেতন দিত না বলে অভিযোগ স্বপ্নার। এমনকি উত্তরবঙ্গ থেকে যাদের নিয়ে এসেছিল তাদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়েছিল চেন মার্কেটিং এর নাম করে। নাম করা রাজনৈতিক নেতা, পুলিশ, বড় প্রশাসনিক ব্যাক্তির সাথে ছবি দেখিয়ে প্রতারণা করত বলে অভিযোগ। নীলবাতি গাড়িতে করে ঘুরে বেরোতেন। যখন বহু যুবক-যুবতী প্রতারিত হয়ে টাকা ফেরত না পেয়ে 'চা সঙ্গী' র ম্যানেজার স্বপ্না চাঁইকে আটক করে। স্বপ্না চাঁই বুঝতে পারে সেও প্রতারিত হয়েছে। এরপরেই আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশ কমিশনারের অফিসে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে স্বপ্না । তারপর থেকে ফেরার ছিল বিদ্যুৎ পোদ্দার। প্রায় আড়াই বছর পর অভিযুক্ত বিদ্যুৎ পোদ্দারকে কলকাতার নিউটাউন এলাকা থেকে গ্রেফতার করে দুর্গাপুর থানার পুলিশ । 

রবিবার দুর্গাপুর মহকুমা আদালতে তোলা হলে ২ দিনের জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয়। তবে এই ঘটনার অভিযোকারী স্বপ্না চাঁই জানিয়েছেন প্রায় আড়াই বছর পর ধরা পড়ল বিদ্যুৎ পোদ্দার। তার উপযুক্ত শাস্তির দাবি করেন স্বপ্না। একইসঙ্গে এই ঘটনার সাথে যারা যুক্ত তাদের খুঁজে বের করে উপযুক্ত শাস্তির দাবি করা হয়। প্রতারিতদের টাকা ফেরতের দাবিও জানান স্বপ্না চাঁই। তবে আদালত চত্বরে অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত বিদ্যুৎ পোদ্দার। তাকে আদালত থেকে জেলে নিয়ে যাওয়ার সময় তিনি জানান তিনি নির্দোষ। 

স

cityaddnew

স